মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

কী সেবা কীভাবে পাবেন

প্রাপ্ত সেবা সমূহঃ

ক) বর্হিঃ বিভাগীয় সেবা,  উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেস্নক্সের একটি গুরম্নত্বপূর্ণ সেবা। এখানে মেডিকেল অফিসার ও জুনিয়র কনসালটেন্টগন বসেন এবং সরকার কর্তৃক নির্ধারিত ৩/- টাকা ফি বিনিময়ে সেবাদান করে থাকেন। এখান থেকে(ফার্মেসী) সরবরাহ থাকা সাপেক্ষে বিনামূল্যে ঔষধ দেওয়া হয় এবং এখানে একটি টিকেট কাউন্টার আছে।বহিঃ বিভাগ থেকে আরো যে সকল সেবা পাওয়া যায় তা হলো -ইপিআ্ই টিকাদান, মাও শিশু স্বাস্থ্য সেবা এবং গর্ভবর্তী  মহিলাদের সেবাদান, রোগ  নিরম্নপনের জন্য ল্যাবরেটরীতে সরকার কর্তৃক নির্ধারিত ফি বিনিময়ে পরীক্ষা নিরীক্ষা করা হয়।  চিকিৎসকের পরামর্শ মতে সরকার কর্তৃক নির্ধারিত ফি বিনিময়ে এক্সরে, ইসিজি করা হয়ে থাকে।

 

খ) Indoor  সেবা - রোগীরা জরুরী বিভাগ থেকে সরকার কর্তৃক নির্ধারিত ৫/- টাকা ফি বিনিময়ে সেবাদান করে থাকেন। মেডিকেল অফিসার পরামর্শ মতে রেজিষ্ট্রেশন করে Indoor বিভাগে ভর্তি করে দেওয়া হয় । ভর্তি হওয়ার সাথে সাথে  আবাসিক মেডিকেল অফিসার দিনে ২বার চিকিৎসা সেবা  প্রদান করে থাকে ।

 

গ) জরুরী  বিভাগ সার্বক্ষনিক চিকিৎসা সেবা- দিবা রাত্রি ২৪ ঘন্টা জরুরী বিভাগ খোলা থাকে এবং আগত রোগীদের জরুরী চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয় । বিভিন্ন এলাকা থেকে রেফার্ডকৃত রোগীদের গুরুত্ব সহকারে স্বাস্থ্য সেবা দেওয়া হয় এবং প্রয়োজন বোধে কোন কোন রোগীকে জেলা হাসপাতালে রেফার করা হয় ।

 

ঘ) ইপিআইঃ-শিশু/মহিলাদের টিকাদান কার্যক্রম- ইপিআই কার্যক্রমের আওতায়  প্রতিদিন মা শিশুদের প্রতিষেধক টিকা দেওয়া হয় । এর আওতায় ৯টি রোগ প্রতিরোধ করা হয়। মা ও শিশুর মৃত্যুর হ্রাসে ইহা একটি গুরুত্ব পূর্ন কর্মসূচী ।

 

ঙ)  যক্ষা ও কুষ্ঠ রোগের চিকিৎসা সেবা- হাসপাতালে আগত রোগীগন মেডিকেল অফিসার(ডিসি) বা চিকিৎসকের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় পরীক্ষা যেমন- কফ,এক্স-রে,রক্ত ইত্যাদি সম্পন্ন করে রোগী হিসেবে সনাক্ত হওয়ার পর ডর্টস কর্ণার থেকে রেজিষ্ট্রেশন নম্বর নিয়ে পরিচয় পদ্র দেওয়া হয় । ৬-৮ মাস মেয়াদী  চিৎৎসা ব্যবস্থাপনায় সম্পূর্ন ঔষধ বিনামুল্যে সরবরাহ করা হয় । ডর্টস কর্ণার বা সেবিকার উপস্থিতিতে রোগীকে ঔষধ সেবন করতে হয় ।  কুষ্ঠ রোগীকে চিকিৎসক কর্তৃক সনাক্তকৃত রোগীকে ডর্টস কর্ণার থেকে রেজিষ্ট্রেশন নম্বর নিয়ে চিকিৎসা শুরম্ন করবেন । ৯-১৮ মাস মেয়াদী এর চিকিৎসায় সম্পূর্ন বিনামূল্যে ঔষধ সরবরাহ করা হয় ।

 

চ) ওআরটি কর্ণার- ডায়রিয়া রোগীর সাময়িক ব্যবস্থাপনা-বহি বিভাগে আগত ডায়রিয়া রোগীদেরকে তৈরী  স্যালাইন খাওয়ানো হয় , তাহাদেরকে ডায়রিয়া প্র্রতিরোধ সর্ম্পকে সুষ্পষ্ট ধারনা  দেওয়া শিক্ষা সহ খাওয়ার স্যালাইন কিভাবে তৈরী করতে হয় সেই ব্যাপারে প্রশিÿন দেওয়া হয় ।

 

ছ) নিরাপদ প্রসব এবং প্রসব পূর্ব  প্রসবোত্তর ব্যবস্থাপনা

  নিরাপদ প্রসব হচ্ছে এমন একটি পরিবেশ/অবস্থা যা একজন নারী গর্ভ প্রসব সংক্রান্ত জটিলতা ও মৃত্যু থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় সকল সেবা পেতে পারেন তা নিশ্চিত হতে হবে। যেমন গর্ভকালীন সেবা, নিরাপদ প্রসব ব্যবস্থা, জরম্নরী প্রসব ব্যবস্থা ইত্যাদি । প্রসব পূর্ব সেবার জন্য গর্ভবতী  মাকে অবশ্যই কোন স্বাস্থ্য কর্মী ,অথবা চিকিৎসকের নিকট শরনাপন্ন হতে হবে, প্রসব, রক্ত পরীক্ষা করে, সেই অনুয়ায়ী ঔষধের ব্যবস্থা করতে হবে । জন্ডিস থাকলে প্রচুর পানি খেতে হবে ও বিশ্রাম নিতে হবে। এই সময় গর্ভবর্তী মায়ের আত্নীয় স্বজনকে প্রসব সম্পর্কিত বিভিন্ন বিষয়ের উপর সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে। যেমন প্রসব কোথায় হবে,টাকা পয়সার প্রয়োজনীয়তা , জরুরী ভিত্তিতে গাড়ীর ব্যবস্থা করা ইত্যাদি সর্ম্পকে  বুঝিয়ে বা পরামর্শ দিতে হবে ।

প্রসব পূর্ব  প্রসবোত্তর ব্যবস্থাপনা- প্রসবেব পরই মায়ের  এবং নব জাতকের যত্ন নিতে হবে। মা যেন শিশুকে বুকের দুধ খাওয়াতে পারে,সে দিকে নজর নিতে হবে। মাকে বুঝিয়ে দিতে হবে কিভাবে শিশুও নিজের যত্ন নিতে হবে। ৪৫দিন পর  শিশুকে টিকা দেওয়ার কথা অবশ্যই বলে দিতে হবে। মায়ের অতিরিক্ত রক্ত স্রাব হচ্ছে কিনা তা দেখতে হবে । যদি রক্ত স্রাব বেশী হয় তবে উপযুক্ত চিকিৎসা দিতে হবে ডাক্তারে নির্দেশ অনুযায়ী ।

 

জ) দন্ত রোগের চিকিৎসা সেবা-বহি বিভাগে আগত রোগীদেরকে দন্ত রোগের চিকিৎসা দেওয়া হয় ।

 

 

ঞ) স্বাস্থ্য শিক্ষা কার্যক্রম- উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেস্নক্সের বহি বিভাগ,জরুরী বিভাগ ও Indoor বিভাগে রোগীদেরকে শিশু পরিচর্যা, পুষ্টি,পরিস্কার পরিচ্ছন্ন, ডায়রিয়া, ইপিআই, ম্যালেরিয়া, নিরাপদ মাতৃত্ব,শিশু স্বাস্থ্য ,মাতৃ স্বাস্থ্য ,খাবার সাল্যাইন,পারিবারিক স্বাস্থ্য সচেতনতা,হাত ধোয়া,ও আর্সেনিক সম্পর্কে শিÿা প্রদান করা হয় ।

 

চ)  এক্স-রে ও ইসিজি সেবাঃ- উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেস্নক্সের সরকারী ইউজার ফি মোতাবেক বহি বিভাগ,জরুরী  বিভাগ ও অমত্মঃ বিভাগের ডাক্তারদের ব্যবস্থাপত্র মাধ্যমে রোগীদেরকে এক্স-রে করা হয়। এক্স-রে ফ্রি-বাবদ বড় ফিল্ব-(সাইজ ১২র্র্-১৫র্)=৭০/-টাকা এবং মাঝারি ফিল্ব-( (১০র্র্-১২র্)= ৫৫টাকা ও ছোট ফ্লিম ( সাইজ ৮র্-১০র্)= ৫৫/- টাকা নেওয়া হয় । এবং  ইসিজি প্রতি রোগী থেকে ৮০/-টাকা করে নেওয়া হয় ।


Share with :

Facebook Twitter